কামালুদ্দিনের অন্তর্দৃষ্টি

শিল্পীর মননে সাদা ক্যানভাসে যে তুলিটি একের পর এক আঁচড় দিয়ে যাচ্ছে সেই ছবিটি কখনো আমরা দেখতে পাই, কখনো পাই না। তবে এই প্রদর্শনীতে শিল্পী কামালুদ্দিনের মনের ক্যানভাসের ছবি দেখার সুযোগ আছে। খুবই ক্ষুদ্র জিনিস থেকে শুরু করে রাজনৈতিক ইঙ্গিত বা রাজনৈতিক বার্তা দেয়ার ইঙ্গিতও খুঁজে পাওয়া যাবে এখানে।

একজন শিল্পী যে নিজেকে প্রতিনিয়ত অঙ্গারে পুড়তে পুড়তে শানিত করেছেন তা তার চিত্রকর্ম দেখলেই টের পাওয়া যায়। বাংলাদেশ, ভারত, জাপান, চীন, নেপাল, জার্মানী, মালদ্বীপ, নেদারল্যান্ডসহ অষ্ট্রেলিয়াতে কামালুদ্দিন ষাটটি দলীয় চিত্র প্রদর্শনী করেছেন দীর্ঘ সময় ধরে। এই গোটা সময়টাই তিনি নিজের প্রস্তুতিকে আরো শক্তপোক্ত করেছেন।

৪০টি ছবি নিয়ে রাজধানীর উত্তরায় গ্যালারি কায়ায় শুরু হয়েছে শিল্পী কামালুদ্দিনের একক চিত্রপ্রদর্শনী ‘অন্তর্দৃষ্টি’। এটি কামালুদ্দিনের প্রথম একক চিত্রপ্রদর্শনী। শিল্পীর সাম্প্রতিক সময়ের ছবিগুলো দেখা যাবে এই প্রদর্শনীতে। দেশের সমসাময়িক চালচিত্রও ফুটে উঠেছে এই প্রদর্শনীতে।

কামালুদ্দিন তাঁর ‘অন্তর্দৃষ্টি’তে একদিকে যেমন রান্নাঘরের হাঁড়ি, পাতিল, হামানদিস্তা, পান-সুপারী, সুপারী কাটার যাঁতি বা জাঁতি তুলে ধরেছেন, অন্যদিকে শিশুদের খেলনা হাতি, ঘোড়া, ডুগিও ধরেছেন ক্যানভাসে।

যে ছোট ছোট বস্তুগুলো আমরা এড়িয়ে যাই, যা আমাদের নিত্যদিনের সামগ্রী এমন সব বস্তু যখন চোখের সামনে চিত্রকর্ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতিদিনের দাগ আহরণ করা তৈজসপত্রের প্রতি যে অবজ্ঞার কিছু নেই তাই যেন এই প্রদর্শনীতে বার বার ফুটে উঠেছে।

কিশোরীর নিষ্পাপ মুখ, আজন্ম শৈশব, কৈশর সময়ের বেড়ে উঠা, উৎফুল্ল উন্মাদনা যেমন কামালুদ্দিন বন্দী করেছেন তার চিত্রকর্মে অপরদিকে দলিত নারীর কষ্টের ছবিও ফুটে উঠেছে তার চিত্রকর্মে।

মুখোশ পরা মানুষের ফুলের গন্ধ খুঁজে বেড়ানো বা মাথায় মুখোশ পরে ওপরে শান্তির প্রতীক কবুতর উড়ে যাওয়ার চিত্র দেখলেই টের পাওয়া যায় এই ছবিগুলো কতটা প্রতীকী। স্বাধীন দেশে সবাই স্বাধীন কিন্তু আমরা নিজেদের অবস্থান কতটা স্বাধীন এই প্রশ্নটা বার বার মনে করিয়ে দেয়।

অন্তর্দৃষ্টি শিরোনামের প্রদর্শনীতে বার বার ভিন্ন ভিন্ন মানুষের, পশুর অন্তর্দৃষ্টির কথা মনে করিয়ে দেয় এই প্রদর্শনী। একজন গার্ডের অন্তর্দৃষ্টি, একজন খেটে খাওয়া মানুষের অন্তর্দৃষ্টি, একজন চুলহীন মানুষের অন্তর্দৃষ্টি, একটি কাকের অন্তর্দৃষ্টিও তুলে ধরেছেন শিল্পী কামালুদ্দিন।

একজন বিনয়ী শিল্পী কামালুদ্দিন। নীরবে, নীভৃতে আপন মনে কাজ করে যান। নিজের সর্বোচ্চ দেয়ার চেষ্টা করেন সবসময়। নিজেকে শতভাগ প্রস্তুত করেই একক প্রদর্শনী করেছেন। তেলরঙ, জলরঙে আঁকা এই চিত্রকর্মগুলো টেনে ধরে রাখে দীর্ঘক্ষণ। শিল্পী কামালুদ্দিনের একক চিত্রপ্রদর্শনী ‘অন্তর্দৃষ্টি’ চলবে আগামী ৪ মে পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি খোলা থাকে। প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত।