চলে গেলেন কিশোরী আমনকর

ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী কিশোরী আমনকর মারা গেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই বয়সজনিত নানা অসুখে ভুগছিলেন তিনি। ৩ এপ্রিল, সোমবার রাতে মুম্বাইয়ে নিজের বাড়িতে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

কিশোরী আমনকর জন্মগ্রহণ করেন ১৯৩২ সালে। বেড়ে ওঠেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের আবহেই। মা মোগুবাই কুর্দিকরও ছিলেন বিশিষ্ট শিল্পী এবং তাঁর শিক্ষক ছিলেন আল্লাদিয়া খান সাহেব। আমনকর তাঁর মায়ের কাছেই সংগীতের প্রাথমিক তালিম নেন। ছোট থেকেই জয়পুর ঘরানার সঙ্গীতকে আঁকড়ে ধরেন। পরে সেই ঘরানাতেই যোগ করেন ভিন্ন মাত্রা।

ঠুমরি, ভজন, খেয়ালে বিশেষ পারদর্শি ছিলেন। বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রেও গান করেছেন তিনি। মূলত ‘আবেগীয় উপস্থাপন’ এর কারণে বিশেষ জনপ্রিয়তা লাভ করেন।

শিল্পীর হাতে উৎসব স্মারক তুলে দিচ্ছেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব আবুল খায়ের

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন আয়োজিত বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবে সংগীত পরিবেশন করেন এই গুণী শিল্পী।

সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য ১৯৮৭তে পদ্মভূষণ আর ২০০২ সালে পদ্মবিভূষণ সম্মানে ভূষিত করা হয় তাকে। ২০১৩ সালে পণ্ডিত ভীমসেন আজীবন সম্মাননা পদকে ভূষিত হন তিনি।

তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক নেমে এসেছে সঙ্গীতাঙ্গনে।