পাঁচ শিল্পীর প্রদর্শনী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের পাঁচজন প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ শিক্ষকের কাজ নিয়ে ৯ মে থেকে শুরু হয়েছে ‘রিটার্ন টু নেচার’ শিরোনামের চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। গ্যালারি এথেনাতে এই প্রদর্শনী চলবে ৯ জুন পর্যন্ত।
পাঁচজন শিল্পী পাঁচটি ভিন্ন আঙ্গিকে সাজিয়েছেন প্রদর্শনী। কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি দাঁড়িয়ে থাকা বর্তমান থেকে নৈসর্গিক বাংলার মাঝে হারিয়ে যাওয়ার জন্য এই আয়োজন যথাযোগ্য। কারণ, নদীমাতৃক বাংলাকে খুঁজে পাওয়া যায় এর প্রতিটি শিল্পকর্মে। প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়া শিক্ষক-শিল্পীরা হলেন আনিসুজ্জামান, বিশ্বজিৎ গোস্বামী, আব্দুর সাত্তার, সুমন ওয়াহেদ ও শহীদ কাজী। শিল্পীদের মুখ্য উদ্দেশ্য, সবাইকে সেই অতীতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া, যেখানে তাদের প্রথম হাতেখড়ি।

প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী শিল্পী বিশ্বজিৎ গোস্বামী মনে করেন, তাঁরা তাঁদের ছাত্রাবস্থার প্রাথমিক সময়ের যে শিক্ষা প্রাতিষ্ঠানিক রূপে পেয়েছেন, সময়ের প্রভাবে সেই জ্ঞানের ব্যাপক বিবর্তন সাধিত হয়েছে। তাঁদের প্রত্যেকের এখন নিজস্ব আঙ্গিক তৈরি হয়েছে। আর এখানে প্রদর্শিত সব শিল্পকর্মই তাঁদের সেই প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞানের নতুন উপস্থাপন, যেখানে প্রকৃতি তাদের নিজের ভাষায় কথা বলেছে। শাশ্বত বাংলার চিরায়ত নদী আর নানা রকম নৌকার আধিক্য এখানে যেন সাবলীল ভাষায় উঠে এসেছে শিল্পীর তুলিতে। অন্যদিকে ইম্প্রেশনিজমের আবহে তেলচিত্র করেছেন শিল্পী শহীদ কাজী। আর নিজের ছাত্রজীবনের অভিজ্ঞতা থেকে ছবি এঁকেছেন শিল্পী সুমন ওয়াহেদ, যেখানে মূল উপজীব্য মাছের বাজার অথবা কসাইখানার মুহূর্ত। এসব জায়গার ছবি এঁকে তিনি বিশ্বজুড়ে খোলাবাজারের সঙ্গে এর অর্থনৈতিক সম্পর্কের একটি সম্পূরকতা প্রকাশ করেছেন।