ফাহমিদা নবীর নতুন অ্যালবাম

সেই ১৯৮৯ সালে প্রথম একক অ্যালবাম নিয়ে শ্রোতাদের মাঝে হাজির হন ফাহমিদা নবী। এরপর একে একে ১৫টি একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে এই কণ্ঠশিল্পীর এবং জনপ্রিয়তার পারদ দিনকে দিন উঁচুতেই উঠেছে। এবার ১৬ তম অ্যালবাম নিয়ে হাজির হলেন তিনি। বেঙ্গল ফাউন্ডেশন থেকে প্রকাশিত ‘ভুল করে ভালোবেসেছি’ শিরোনামের এই অ্যালবামের সুর করেছেন প্রয়াত শিল্পী লাকি আখন্দ।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার, সন্ধ্যায় লালমাটিয়ার বেঙ্গল বই প্রাঙ্গণে সংগীত অ্যালবামটির মোড়ক উন্মোচন করেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী।

মোড়ক উন্মোচন শেষে শিল্পী ফাহমিদা নবীর সংগীত জীবনের সফলতার কথা ব্যক্ত করেন সুবীর নন্দী। তিনি বলেন, ফাহমিদা তার গায়নে নিজস্ব একটা স্বকীয়তা আনতে পেরেছেন যা শ্রোতা সমাদৃত হয়েছে।’ এ ছাড়াও বর্তমান সময়ের আধুনিক বাংলা গানের ভাল কথা ও সুরের সঙ্কটের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে শিল্পী ফাহমিদা নবী সংগীত পরিবেশন করেন। তিনি শুরু করেন অ্যালবামের ‘কে তুমি’ গানটি দিয়ে শুরু করেন। এরপর প্রয়াত লাকী আখন্দের সুরে ‘বিষন্নতা’ শিরোনামের গানটি গেয়ে শোনান। পরে একে একে ‘ভুল করে ভবালোবেসেছি’, ‘যতো কথা’, ‘ভালবাসা মরে গেল’ সহ অ্যালবাম ও অ্যালবামের বাইরের কিছু গানও পরিবেশন করেন তিনি। এসময় শিল্পীর সঙ্গে যন্ত্রানুষঙ্গে ছিলেন তবলায় অর্নিবাণ সরকার, কী-বোর্ডে শামিম বুলেট, গিটারে শুভেন্দু শুভ এবং কাহনে সুদীপ্ত শুভ।

উল্লেখ্য, নন্দিত কন্ঠশিল্পী মাহমুদুন্নবীর জ্যেষ্ঠ কন্যা ফাহমিদা নবীর একক সংগীতযাত্রা শুরু হয় ১৯৭৮ সালে। কন্ঠের লাবণ্য তার পরিমিতি বোধ এবং স্বকীয় গায়নশৈলীর গুণে আধুনিক গানের জগতে ও প্লেব্যাকে সুদৃঢ় অবস্থান তৈরী করেন তিনি। বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের নিয়মিত এই শিল্পীর একাধিক একক, দ্বৈত ও দলীয় অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে। এর আগে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন থেকে ২০০৫ সালে ‘দুপুরের একলা পাখি’ শিরোনামে একক অডিও অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। ২০০৭ সালে বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ২০০৮ সালে লাক্স-চ্যানেল আই পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড ও ২০০৯ সালে মেরিল-প্রথম আলো, ২০১৩ সালে সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন ফাহমিদা নবী।