বইয়ের রাজ্যের দুয়ার খুলছে

পঠন অভ্যাস চালু রেখে মানুষের মনন বিকাশে কাজ করে যাচ্ছে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন। রুচিশীল পাঠক তৈরির লক্ষ্যে শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির মিলন আবহে ১৪ নভেম্বর থেকে লালমাটিয়ায় যাত্রা শুরু করছে বই বিপণি প্রতিষ্ঠান- বেঙ্গল বই
বেঙ্গল বই এর যাত্রা শুরু উপলক্ষে মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর বিকেল থেকে শনিবার ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত পাঁচ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। পাঁচ দিনই সকাল-সন্ধ্যা গান, আড্ডা, গল্প, বই প্রকাশনা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর মাধ্যমে মুখর থাকবে বেঙ্গল বই প্রাঙ্গণ।

লালমাটিয়ার ডি ব্লকের ১/৩ ঠিকানার ভবনটিই বেঙ্গল বইয়ের ঠিকানা। এর নিচতলাজুড়ে থাকছে সব শ্রেণির পাঠকের জন্য পুরনো বই ও ম্যাগাজিন এবং চায়ের বন্দোবস্ত। আর দোতলা-তিনতলা জুড়ে থাকছে দেশি-বিদেশি বই। দোতলায় নিভৃতে বই পড়তে থাকবে আধুনিক ক্যাফে। আবার কফি কাপে চুমুক দিতে দিতে গল্প করতে চাইলে আছে বারান্দা।
নবীন ও প্রবীণ পাঠকদের জন্যও থাকবে বাড়তি আয়োজন। তিনতলার প্রায় পুরোটা জুড়ে তৈরি করা হয়েছে বিশেষ আঙিনা। আনন্দঘন পরিবেশে বই পড়া ছাড়াও গল্পবলা, আবৃত্তি, ছবি দেখা ও আঁকাআঁকির মাধ্যমে সময় কাটাতে পারবে শিশুরা। বইয়ের পাশাপাশি লেখাপড়া সহায়ক নানা সামগ্রীও থাকছে এখানে। আবার প্রবীণদের জন্য রয়েছে বইয়ে বিশেষ ছাড় এবং বাগানে বসে আড্ডা দেওয়ার পরিবেশ।
বেঙ্গল বই প্রাঙ্গণে নিয়মিত পাঠচক্র, কবিতা পাঠের আসর, নতুন লেখা ও লেখকের সঙ্গে পরিচিতিমূলক সভা, প্রকাশনা উৎসব, চিত্র ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীসহ নানা আয়োজন থাকছে। ছুটির দিনগুলোয় প্রিয়জনদের নিয়ে বাগানে বসে চলতে পারে আড্ডা।
আগামী পরশু ১৪ নভেম্বর উদ্বোধন হবে বেঙ্গল বইয়ের। এদিন বইয়ের রাজ্যের দ্বার উন্মোচন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী এবং বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমেরিটাস ড. আনিসুজ্জামান। এ উপলক্ষে বেঙ্গল পাবলিকেশন্‌স প্রকাশিত মুক্তিযুদ্ধের ব্যক্তিক আখ্যান Stories From the Edge: Personal Narratives of the Liberation War বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হবে। বইটির সম্পাদকদ্বয়ের একজন অধ্যাপক ড. নিয়াজ জামান গ্রন্থের ওপর আলোকপাত করবেন। এছাড়া সূচনা সংগীত পরিবেশন করবেন এক্সেল একাডেমির শিশু শিল্পীরা।
পরদিন, বুধবার, ১৫ নভেম্বর সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে বয়স্বী কল্যাণ সমিতির সদস্যদের নিয়ে অগ্রজদের জন্য গান, গল্প ও আড্ডা। এখানে বক্তব্য রাখবেন শিল্পী মিতা হক। বিশেষ অতিথি থাকবেন মানবাধিকারকর্মী অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল। বিকেল সাড়ে পাঁচটায় আলী আনোয়ারের প্রবন্ধ-সংকলন সাহিত্যের বিরল আঙিনায় বইটির মোড়ক উন্মোচন করবেন কথাসাহিত্যিক ওয়াসি আহমেদ। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় স্যাক্সোফোন পরিবেশন করবেন শিল্পী মনিরুজ্জামান।

উদ্বোধনের তৃতীয় দিন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর সকাল ১১টায় থাকছে ইউডা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সমবেত গান। পাঠশালা ও ইউল্যাব শিক্ষার্থীদের চলচ্চিত্র প্রদর্শন। এখানে বিশেষ অতিথি থাকবেন শিল্পী মনিরুল ইসলাম ও নূহাশ হুমায়ূন। বিকেল সাড়ে পাঁচটায় আবু ইসহাক হোসেন রচিত বাংলার রেনেসাঁস ও লালন ফকির বইটির মোড়ক উন্মোচন করবেন গবেষক, প্রাবন্ধিক ও রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় শিল্পী ফরিদা পারভীন গাইবেন লালনের গান। তাঁর সঙ্গে লালন ফকিরের গান ও দর্শন নিয়ে কথা বলবেন আবু ইসহাক হোসেন।
চতুর্থ দিন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর সকাল সাড়ে দশটায় অনুষ্ঠিত হবে শিশুদের জন্য চিত্রকর্মশালা। এটি পরিচালনা করবেন শিল্পী মুস্তাফিজুল হক। এসময় জাদু পরিবেশন করবেন উলফাৎ কবীর। বিশেষ অতিথি থাকবেন শিল্পী কনকচাঁপা চাকমা।
পঞ্চম দিন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর সকাল সাড়ে দশটায় থাকছে ব্যাপ্টিস্ট চার্চ স্কুলের দৃষ্টি-প্রতিবন্ধী শিশুদের গান, সুরের ধারার শিক্ষার্থীদের সমবেত গান। এদিন গল্প শোনাবেন রূপা চক্রবর্তী এবং বিশেষ অতিথি থাকবেন শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। সন্ধ্যা ৬টায় খালেদ হোসেইন ও সাজ্জাদ আরেফিন সম্পাদিত সমর সেন : জন্মশতবার্ষিক শ্রদ্ধাঞ্জলি বইটির মোড়ক উন্মোচন করবেন গবেষক ও প্রাবন্ধিক বেগম আকতার কামাল। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় অনুষ্ঠিত হবে সমকালীন কবিদের কবিতা পাঠের আসর- কবিতা কথন।