বেঙ্গলের তিনটি নতুন অ্যালবাম

সংগীত, সাহিত্য, চিত্রকলা, স্থাপত্য ইত্যাদি সৃজনশীল ক্ষেত্রে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন। দেশের সংস্কৃতি ও গৌরবময় ঐতিহ্য রক্ষায় প্রায় তিন দশক ধরে বিশেষ অবদান রেখে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। এর নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে জন্মলগ্ন থেকেই সৃজনশীল ও মননশীল সংগীতে উৎসাহ দিয়ে আসছে, প্রকাশ করেছে অসংখ্য সংগীত অ্যালবাম। চলতি মাসেই বেঙ্গল ফাউন্ডেশন প্রকাশ করেছে তিনটি নতুন সংগীত অ্যালবাম।

 

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সরোদশিল্পী পণ্ডিত তেজেন্দ্র নারায়ণ মজুমদারের সরোদে রবীন্দ্রসংগীত, নজরুল সংগীত শিল্পী অনিন্দিতা চৌধুরীরর নয়নের নীরে ও বিজন চন্দ্র মিস্ত্রীর বনে বনে লাগলো দোল – এ তিনটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের প্রযোজনায়।

গত ১০ মে সন্ধ্যায় ছায়ানট মিলনায়তনে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উন্মোচন করা হয় সরোদে রবীন্দ্রসংগীত অ্যালবামটি। সিডির মোড়ক উন্মোচন করেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক মুস্তাফা মনোয়ার। এসময় রবীন্দ্রনাথের গানের নন্দনবিশ্ব সম্পর্কে বক্তব্য রাখে তিনি। অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন শেষে পণ্ডিত তেজেন্দ্র নারায়ণ মজুমদার সরোদে অ্যালবাম ও এর বাইরে থেকে বেশ কটি রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করেন। শিল্পীর সঙ্গে যন্ত্রানুসঙ্গে ছিলেন তবলায় স্বরূপ হোসেন এবং কিবোর্ডে রবিনস।

এর দুদিন পরে অর্থাৎ ১২ মে দুটি নজরুল সংগীতের অ্যালবাম প্রকাশিত হয় বেঙ্গল বই প্রাঙ্গণে। ‘জনম জনম গেল’, ‘মোর ঘুমঘোরে এলে মনোহর’, ‘প্রিয়া যাই যাই বলো না’ সহ মোট ৮টি গান নিয়ে শিল্পী অনিন্দিতা চৌধুরীর কণ্ঠে নয়নের নীরে এবং বিজন চন্দ্র মিস্ত্রীর গাওয়া ‘আমার আপনার চেয়ে’, ‘চেয়ো না সুনয়না’, ‘কেন উচাটন মন পরান’ সহ মোট ১০টি গান নিয়ে বনে বনে লাগলো দোল শীর্ষক অ্যালবাম দুটির মোড়ক উন্মোচন করেন প্রাজ্ঞ শিল্পী সাদিয়া আফরিন মল্লিক এবং খায়রুল আনাম শাকিল।

মোড়ক উন্মোচন শেষে শিল্পীদ্বয় একক ও দ্বৈত সংগীত পরিবেশন করেন। তাদের সঙ্গে যন্ত্রানুসঙ্গে ছিলেন তবলায় পিনু দাস, এসরাজ ও পারকাশনে একরাম হোসেন, গিটারে নাসির উদ্দিন এবং কিবোর্ডে ইফতেখার হোসেন সোহেল। দুটি অনুষ্ঠানই সঞ্চালনা করেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী।