মিরপুরে বইমেলা

রাজধানী ঢাকার মিরপুরে দেশের শীর্ষ দুই প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল পাবলিকেশন্‌স  এবং প্রথমা প্রকাশন এক বইমেলার আয়োজন করে। গত নভেম্বরে ৬ দিনব্যাপী এই মেলা অনুষ্ঠিত হয় মিরপুরে শহীদ আবু তালেব উচ্চবিদ্যালয় প্রাঙ্গণে।
বিশিষ্ট লেখক, শিক্ষক ও ছাত্রদের সম্মিলনে মুখর ছিল মিরপুর বইমেলা। গত ৭ নভেম্বর বিকেলে শহীদ আবু তালেব উচ্চবিদ্যালয় প্রাঙ্গণে উদ্বোধন হয় ছয় দিনব্যাপী এই বইমেলার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন প্রাবন্ধিক-গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ, কথাশিল্পী আনিসুল হক, শহীদ আবু তালেব উচ্চবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কাজী তানিয়া আক্তার, বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মো. খলিলুর রহমান এবং বিদ্যালয়ের অভিভাবক পরিষদের সদস্য জহির উদ্দিন মো. বাবর, আবদুল জব্বার ও ইউনুস আলী মাতবর। শিক্ষক ও অতিথিদের পক্ষে মেলার উদ্বোধন ঘোষণা করেন সৈয়দ আবুল মকসুদ।
এ রকম ক্ষুদ্র পরিসরে বইমেলার আয়োজনের প্রশংসা করে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, ‘বই লেখা ও প্রকাশ করা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি গুরুত্বপূর্ণ বইমেলা আয়োজন করা। এলাকাভিত্তিক বইমেলা বই বিপণনের জন্য শুধু নয়, বই প্রদর্শনী ও বইয়ের উপযোগিতা তৈরির জন্যও একটা অসামান্য কাজ।’ বই পড়ার ওপর গুরুত্বারোপ করে কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক বলেন, ‘বই থেকে পাওয়া যায় ভবিষ্যতের স্বপ্ন ও জীবনের লক্ষ্য। বই কিনে কেউ ঠকে না।’ কাজী তানিয়া আক্তার বলেন, ‘বই বিবেককে জাগিয়ে তোলে। অতএব, বই পড়ার বিকল্প নেই।’ অনুষ্ঠানের অন্যান্য অতিথিও তাঁদের বক্তব্যে যথাযথ মানুষ হওয়ার জন্য বই পাঠের ওপর গুরুত্ব দেন।
ছুটির দিনসহ প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল বইমেলা। অত্যন্ত সুলভে বই কেনার সুযোগ করে দিয়েছিল এই আয়োজন। মেলায় ৩০ থেকে ৬০ শতাংশ কমিশনে প্রথমা প্রকাশনের বই, ২৫ থেকে ৫০ শতাংশ কমিশনে বেঙ্গল পাবলিকেশন্সের বই বিক্রি হয়। তবে এই দুই প্রকাশনী ছাড়াও অন্যান্য বইয়ের পসরাও ছিল মেলার স্টলগুলোতে। দেশের অন্যান্য প্রকাশনীর বই বিক্রি হয় ২৫ শতাংশ কমিশনে। এমনকি বিদেশি প্রকাশনীর বইও ছিল। এখানে ভারতীয় নতুন বই বিক্রি হয় ১ রুপি সমান ১.৮ টাকায় এবং ভারতীয় পুরোনো বই বিক্রি হয় ১ রুপি সমান ১.৫ টাকায়। পাঠকের দোরগোড়ায় অনুষ্ঠিত এই বইমেলা শেষ হয় ১২ নভেম্বর।