হাতের মুঠোয় স্বপ্ন

পশ্চিমের দেশগুলোতে ‘স্যান্ডম্যান’ কমিকটি বেশ পাঠকপ্রিয়। এই কমিক বইয়ের স্রষ্টা ব্রিটিশ লেখক নিল গেইম্যানের একটি কথা প্রায়ই খুঁজে পাওয়া যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ওয়েবসাইটগুলোতে। গেইম্যান বলেছেন, ‘একটি বই হলো আপনার হাতের মুঠোয় ধরে রাখা স্বপ্ন।’
আসলেই তাই। বইয়ের সঙ্গে সরাসরি জড়িত আমাদের কল্পনা। বইয়ের পাতা থেকেই আমাদের সাদাকালো কিংবা রঙিন স্বপ্নগুলোর বীজ বপন হয়। আর বইটা যেহেতু থাকে আমাদের হাতের মুঠোয়, সেহেতু বইকে যদি কেউ বলে হাতের মুঠোয় ধরে রাখা স্বপ্ন, তা নিয়ে তর্ক না করা চলে না। জ্ঞান আর মনের তৃষ্ণা মেটাতে বইয়ের বিকল্প কিছু হতে পারে না। সেটা যে মাধ্যমেই হোক না কেন, পড়াটাই আসল কথা। মাধ্যম যত বেশি হবে, বইয়ের তৃষ্ণাও মিটবে তত সহজেই।
এমন ভাবনা থেকেই সারা বিশ্বে এখন ‘ই-বুক’ কিংবা ‘ই-বই’ বেশ আলোচিত। দিন দিন এর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে। কাগজে বাঁধানো বইয়ের পাশাপাশি ই-বইও উঠে আসছে মানুষের হাতের মুঠোয়। প্রযুক্তির উন্নয়নে মানুষ এখন আরও ব্যস্ত। নানা কাজে ঘরের বাইরে থাকার সময়ও বেড়েছে আগের চেয়ে। ফলে বই পড়ার ক্ষেত্রে নতুন এই প্রযুক্তির উদ্ভাবন ছিল সময়ের দাবি। কম্পিউটার, স্মার্টফোন কিংবা কিন্ডলের মতো ডিভাইস মানুষের অনেক কাজকেই সহজতর করে তুলছে। ফলে একটি ডিভাইসে থাকছে পছন্দের সব বই। যেকোনো বইপ্রেমীর জন্য এটা একটা বিশাল সুযোগ! প্রিয় বইগুলো নিয়ে দেশ-বিদেশ ঘুরে বেড়ানো কিংবা পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে বসে পছন্দের বই কিনে ফেলার মতো স্বপ্ন বাস্তবায়ন কেবল ই-বুকের মাধ্যমেই সম্ভব।
এ কারণে ই-বইয়ের জনপ্রিয়তা বাড়ছে খুব দ্রুত। তার মানে এই নয় যে কাগজের বই তার আবেদন হারাচ্ছে। দুটো ভিন্ন মাধ্যমের সুবিধা যেমন আছে, তেমনি আছে কিছু সীমাবদ্ধতাও। তবে প্রযুক্তি, প্রয়োজন- সবকিছু মিলিয়ে ই-বই মাধ্যমটাকেও এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চলছে প্রতিনিয়ত। বাংলা ভাষার বিশাল পাঠকগোষ্ঠীর কথা মাথায় রেখে সেই উদ্যোগটা নিয়েছে বেঙ্গল পাবলিকেশন্স। মানসম্মত সৃজনশীল সাহিত্য পাঠকদের হাতে তুলে দেওয়ার প্রয়াস সব সময়ই অগ্রাধিকার পেয়েছে বেঙ্গল পাবলিকেশন্‌সের কাছে। কাগজের বইয়ের পাশাপাশি ডিজিটাল মাধ্যমেও এই চেষ্টা অব্যাহত রাখতে ‘বেঙ্গল ই-বই’ ওয়েবসাইটের কাজ শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। দেড় বছর ধরে কাজ চলার পর এ বছরের ২২ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয় ‘বেঙ্গল ই-বই’ ওয়েবসাইটের।
যাত্রা শুরুর পর থেকেই দারুণ সাড়া মেলে পাঠকদের কাছ থেকে। কয়েকটা ক্লিকেই যদি নিজের স্মার্টফোন বা কম্পিউটারে পছন্দের বইটা পাওয়া যায়, পাঠক তো সাড়া দেবেই। তা ছাড়া বাংলা ভাষার বিশাল একটি পাঠকগোষ্ঠীর বসবাস প্রবাসে। দীর্ঘ অপেক্ষা শেষে বাংলা বইয়ের এমন একটি ওয়েবসাইট পেয়ে বেশ খুশি তাঁরাও। প্রিয় লেখকের বই পড়ার জন্য আর কারও মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হবে না তাঁদের, একটি ওয়েবসাইটেই সাজানো আছে দেশের সেরা লেখকদের সেরা বইগুলো। শুধু ফেব্রুয়ারি নয়, বেঙ্গল ই-বই ডট কমে লেখক-পাঠক আর বইয়ের মেলা এখন সারা বছরই।
চিরায়ত থেকে শুরু করে আধুনিক- সব সময়ের, সব ধরনের বই ডিজিটাল মাধ্যমে হাজির হয়েছে পাঠকদের সামনে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়দের কালজয়ী বইগুলো যেমন আছে, তেমনি সমসাময়িক সাহিত্যের হাসান আজিজুল হক, সমরেশ মজুমদার, সেলিনা হোসেন, সৈয়দ শামসুল হক, মুহম্মদ জাফর ইকবাল, রকিব হাসান, শাহাদুজ্জামান, আহসান হাবীবসহ দেশসেরা লেখকদের সৃষ্টিও পাঠকের হাতে পৌঁছে যাচ্ছে ই-বই ফরম্যাটে। প্রতিনিয়ত যুক্ত হচ্ছেন নতুন নতুন লেখক। বাড়ছে বইয়ের সংখ্যাও। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে স্বচ্ছতা। লেখকের অনুমতি ছাড়াই মূল বই থেকে স্ক্যান করে পিডিএফ আকারে ওয়েবসাইটে তুলে দেওয়ার মতো অন্যায় নিয়মিত করে যাচ্ছে কিছু অসাধু মানুষ। ফলে লেখক-প্রকাশক কেউই তাঁদের প্রাপ্য বুঝে পাচ্ছেন না সেসব সাইট থেকে। বেঙ্গল ই-বই শুরু থেকে এ ব্যাপারে সতর্ক। লেখকদের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ চুক্তি করেই ওয়েবসাইটে বই আপলোড করছে ওয়েবসাইটটি। এই ওয়েবসাইটে লেখকের আলাদা অ্যাকাউন্ট থাকায় লেখক লগইন করে বই ক্রয়-বিক্রয়ের পরিসংখ্যানও জেনে নিতে পারছেন খুব সহজে। পিডিএফ, মোবি এবং ই-পাব- তিন ফরম্যাটেই আপলোড করা হয়েছে বইগুলো। ফলে যেকোনো স্মার্টফোন, কিন্ডল কিংবা কম্পিউটারে বইগুলো পড়তে পারবেন পাঠক। বেঙ্গল ই-বইয়ের ডিফল্ট রিডার তো থাকছেই, চাইলে অন্য যেকোনো রিডার ব্যবহার করে পড়া যাবে এগুলো। প্রয়োজন অনুযায়ী ফন্ট ছোট বড় করা কিংবা গুরুত্বপূর্ণ লাইন বা শব্দ চিহ্নিত করার সুবিধাও থাকছে এখানে।
বই কেনার পদ্ধতিও বেশ সহজ। ভিসা, মাস্টারকার্ড, বিক্যাশ, কিউক্যাশ ও ব্যাংকের ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে কিনতে পারবেন পছন্দের বই। ই-বই কেনাবেচা ছাড়াও সাইটটিতে রয়েছে ব্লগ; যাতে বই, সাহিত্য নিয়ে মুক্ত আলোচনায় অংশ নিতে পারবেন লেখক-পাঠক সবাই।
সব মিলিয়ে বেঙ্গল ই-বই ডট কম যেন পাঠকের পূর্ণাঙ্গ বুকশেলফ হয়ে ওঠে, সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছেন এর কর্মীরা। বাংলা বই, সাহিত্য যেন আরও সহজে পৌঁছতে পারে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা বাংলাভাষী মানুষের কাছে- এটাই বেঙ্গল ই-বই ডট কমের উদ্দেশ্য।
বেঙ্গল ই-বই ডট কম থেকে বই পেতে ভিজিট করতে হবে এর ওয়েবসাইট www.bengaleboi.com-এ।
অথবা ফেসবুকে খোঁজ নেওয়া যাবে www.fb.com/eboi.bengal ঠিকানায়।